আমি রাসেল আহমেদ, ওয়েব ডেভেলপার
আমি যেভাবে কাজ করি

Shares

নাম এবং পেশা

রাসেল আহমেদ, পারফেক্ট পয়েন্ট মার্কেটিং কোম্পানির ওয়েব ডেভেলপার।

আপনি  ৭ বছর ধরে পেশাদার সফ্টওয়্যার ডেভেলপার, কোন প্রোগ্রামিংল্যাঙ্গুয়েজে আপনি কোড করতে ভালবাসেন ও কেন ?

আমার শুরুটা কোন প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ দিয়ে হয়নি। গ্রামে থাকার কারনে গাইডলাইন না পেয়ে আমি প্রথমেই সিএমএস (কনটেন্ট ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম) নিয়ে শুরু করেছিলাম এবং জুমলাতে কাজ করতাম। তারপর একসময় মনে হল জুমলার কম্পনেন্টগুলো কিভাবে কাজ করে সেগুলো আমার জানা প্রয়োজন। তাছাড়া তখন একটা ছোট প্রজেক্টের জন্য ডেটাবেজের তথ্য সাইটে দেখানোর প্রয়োজন পড়েছিল। তাই তখন থেকেই চিন্তা করলাম আমার পিএইচপি জানা প্রয়োজন। এরপর যখন আস্তে আস্তে ওয়ার্ডপ্রেস এর সাথে পরিচিত হয় তখনই পিএইচপিকে ভালোবেসে ফেলি।

থিম ডেভেলপমেন্ট এর কাজ করার সময় দেখলাম পিএইচপি যদি আরও ভালো করে জানা যায় তাহলে বিভিন্ন ধরনের থিম ও অনেক ফাংশনের প্লাগিন বানাতে পারবো। তাই পিএইচপিতে প্রোগ্রামিং করতে ভালো লাগে।

ডেভেলপমেন্টের জন্য কোন IDE টি আপনার কাছে সেরা মনে হয় ?

প্রথমে আমি নোটপ্যাড++ ব্যবহার করতাম ডেভেলপমেন্টের জন্য। আস্তে আস্তে যখন বড় বড় প্রজেক্ট নিয়ে কাজ করতে শুরু করি তখন পিএইচপিস্ট্রম ব্যবহার করতে শুরু করি। পরবর্তীতে ছোট ছোট কাজের জন্য নোটপ্যাড ছেড়ে ব্রাকেটস ব্যবহার করি। এখনও ব্রাকেটসে কাজ করতে ভালো লাগে। পিএইচপি বেইজড বড় কোন কাজ হলে পিএইচপিস্ট্রম ব্যবহার করি।

ডেভেলপমেন্টের জন্য কোন অপারেটিং সিস্টেম(ওএস) আপনি ভাল মনে করেন ?

যারা ডেভেলমেন্টে আসতে চায় তাদের জন্য অবশ্যই লিনাক্স বেইজড কোন ডিস্ট্রোকে রেকমেন্ড করবো। আমার শুরুটা হয়েছে উইন্ডোজ দিয়ে। নতুন ইউজারদের জন্য উইন্ডোজে ভাইরাস এটাক করার সম্ভাবনা বেশী থাকে। আমার নিজেরও প্রথম প্রথম অনেক সমস্যা হতো। তাছাড়া লিনাক্স বেইজড ডিস্ট্রোগুলো প্রচুর কাস্টমাইজেশন করা যায় বলে অনেক কিছু জানা হয়।

পরবর্তীতে সিকিউরিটি ও স্ট্যাবিলিটির জন্য আমি ম্যাক ও এস এক্স ব্যবহার করতে শুরু করি এবং বর্তমানে এটাই ব্যবহার করছি।

সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্টের জন্য কোন সাইট বা ব্লগগুলো আপনি নিয়মিত ভিজিট করেন ?

অনেক সাইটেই ভিজিট করা হয়। তার মধ্যে সবচেয়ে বেশী যাওয়া হয়:

এমন কোনো প্রোজেক্ট বা প্রোডাক্ট আছে কি যেটি নিয়ে আপনি গর্ব বোধ করেন ?

আর. আর. ফাউন্ডেশন নামে আমার একটা প্রতিষ্ঠান আছে যেটাকে নিয়ে আমি গর্ববোধ করি।

গ্রামে থেকে ওয়েব ডিজাইন শেখাটা একসময় স্বপ্নের ছিল। গ্রামে নেই কোন ভাল ট্রেনিং প্রতিষ্ঠান, নেই কোন ব্যবস্থা। যখন আমি কাজগুলো একটু করে শেখার চেষ্টা করছিলাম, আমি একটু করে পিছিয়ে পড়তাম। আমি পেতাম না কোন গাইডলাইন। একটা জিনিস শিখতাম, সেটা ভালো না লাগায়, কোড না বোঝাতে আমি আবার অন্যটাতে চলে যেতাম। তাই অন্য কোড ও সঠিকভাবে বুঝতাম না।

ওয়েব ডিজাইন এন্ড ডেভেলপমেন্ট এমনই একটা বিষয় যেখানে ধারাবাহিকভাবে না শিখলে সঠিকভাবে আগানো যাবে না। তাই আমার শেখাটা হত খাপছাড়া এবং উল্টা-পাল্টা। এভাবে শিখে কাজ পাওয়াটা ছিল অনেক কষ্টের।

ওয়েব ডিজাইন শিখতে গেলে হাজারোটা প্রশ্ন আসে মনে। কোড লিখতে গিয়ে ভুল হতেই পারে। অথবা, দেখা যায় একটা জিনিস অনেক চেষ্টার পরও হচ্ছে না। আবার কাজ করার পর সেটাকে কিভাবে আরও ভাল করা যায় সেটা কখনোই জানতে পারতাম না।

তাই সবাইকে সহজে শেখানোর উদ্দেশ্যে তৈরি করেছি আর. আর. ফাউন্ডেশন। যেখানে ইউটিউব ফেসবুক গ্রুপ ইত্যাদির মাধ্যমে যে কেউ ঘরে বসেই কোডিং শিখতে পারে। গুগলে গিয়ে RR Foundation লিখে সার্চ করেই দেখা যাবে আমাদের প্রতিষ্ঠান সম্পর্কে।

1.1

আপনার সম্প্রতি অবদান রাখা কোন প্রিয় ওপেন সোর্স প্রজেক্ট (বা প্রকল্প) আছে?

আমার বেশকিছু প্রজেক্ট আছে যেগুলো হল

আপনার প্রতিদিনের কাজ করার জন্য কোন ডিভাইসটি বেশি ব্যবহার করে থাকেন এবং কেন ?

আমি যদি আমার গ্রামের বাড়ির বাইরে থাকি তাহলে আমার ম্যাকবুক প্রো ব্যবহার করি আর বাড়িতে থাকলে আইম্যাক ব্যবহার করি। স্মার্টফোনকে শুধুমাত্র ওয়াইফাই রাউটার ও ক্যামেরা হিসেবেই ব্যবহার করি।

এছাড়াও মাঝে মাঝে ফেসবুক চেক করি স্মার্টফোন দিয়ে। আমার সবকাজগুলো সার্ভারে করি যাতে জরুরী প্রয়োজনে যে কোন জায়গা থেকেই কাজগুলো একসেস করতে পারি।

তিনটি অ্যাপ্লিকেশন,সফটওয়্যার বা টুলস যেগুলো ব্যতিত আপনি একেবারেই  চলতে পারেন না ?

আপনার কাজের যায়গাটি কেমন ?

আমার কাজের জায়গাটি একদম সিম্পল। আমি নিরিবিলি থাকতে পছন্দ করি এবং কাজের সময় ফোন রিসিভ ও কারও সাথে কথা বলতে পছন্দ করি না। আর কোন কাজ শেষ না করে বা কোন সমস্যা সমাধান না করলে ঠিকমত খেতে পারি না।

আমি ছোট্ট একটা টেবিলে আইম্যাক বা ম্যাকবুক প্রো এবং ক্রসব্রাউজার টেস্ট করার জন্য একটা উইন্ডোজ কম্পিউটার ও মোবাইল ব্যবহার করি।

11852783_1040281519323393_957846936_o

কাজ করার সময় আপনি কোন ধরনের গান বা কবিতা শুনতে পছন্দ করেন ?

গান শোনাটা কাজের চাপ, মুডের ও পরিবেশের উপর নির্ভর করে। যেমন, কাজের প্রচুর প্রেশার থাকলে কোন গান শুনি না, একদম নিরিবিলি কাজ করে যাই। আমার সামনে একটা বোমা ফাটলেও আমি টের পাবো না। যেমন কয়েকদিন আগে ভুমিকম্পের সময় আমি টের পাইনি কারন সেসময় প্রচুর ব্যস্ত ছিলাম।

আবার কাজের পরিমাণ কম থাকলে ও মুড ভালো থাকলে আমি ইউটিউবে একটা প্লেলিস্ট চালু করে দেই সেখানে থেকে গান শুনতে থাকি। বৃষ্টি হলে ইউটিউব থেকে বৃষ্টির গানের প্লেলিস্ট চালু করে দেই। উল্লেখ্য: ইউটিউবে গানগুলোর ভিডিও দেখি না, শুধু অডিও শুনি।

প্রতিদিনের টু-ডু লিস্ট করার জন্য কোন সফটওয়্যার/পন্থা টি আপনার কাছে সেরা মনে হয় ?

টু ডু লিস্ট করার জন্য এর আগে ওয়ান্ডার লিস্টট্রেলো ব্যবহার করতাম। কিন্তু এখন কোম্পানীতে বেজক্যাম্প ব্যবহার করা হয়। আর আমি ব্যক্তিগতভাবে আমার টাস্কগুলো টেক্টট ফাইলে সেভ করে রাখতে পছন্দ করি।

একজন বাংলাদেশি হিসেবে যানজট আমাদের নিত্য দিনের সঙ্গী। আপনি যখন যানজটে অলস বসে থাকেন তখন কি করেন ?

আমি গ্রামে বসবাস করি। এখানে কোন যানজট নেই। তবে মাঝে মাঝে কাজের প্রয়োজনে ঢাকায় গেলে বুঝতে পারি কত সময় নষ্ট হচ্ছে যানজটে।

কখনও যানজটে পড়লে ফেসবুক দেখি, পত্রিকা পড়ি আর যানজটের মধ্যে থাকা মানুষগুলো দেখি।

আপনার ফোন এবং কম্পিউটার ছাড়াও, কোন গ্যাজেট ছাড়া আপনি চলতে পারবেন না এবং কেন?

যেহেতু গ্রামে থাকি আর এখানে ব্রডব্যান্ড নেই সেহেতু থ্রিজি রাউটারটা ছাড়া আমি চলতে পারি না।

আপনি কোন সময়টাতে কাজ করতে সবচেয়ে বেশি পছন্দ করেন ?

সকালের নাস্তা খাওয়ার আগের ২ ঘন্টা ও নাস্তা খাওয়ার পরের ৩ ঘন্টা। এছাড়াও মাঝে মাঝে যখন রাতজাগা হয় তখনও কাজ করতে পছন্দ করি।

আপনার দৈনিক ঘুমানোর সময়সূচি কেমন ?

আমি সাধারণত রাত ৯ টা থেকে ১০ টার মধ্যে ঘুমিয়ে যাই। আর উঠি সকাল সকাল। তবে মাঝে মাঝে জরুরী কাজ থাকলে ২ টা পর্যন্ত কাজ করি এবং সকালে তখন দেরি করে ১০ টায় উঠি।

কোন কাজটিতে আপনি সবার থেকে একটু আলাদা, একটু ভালো –

আমি খুব সহজ করে যে কোন জিনিস কাউকে শেখাতে পারি। বিভিন্ন ধরনের উদাহারণ বা বিভিন্ন উপমা টেনে যে কোন জিনিস কাউকে বোঝানোর ক্ষমতা আমার বেশী।

গুণীজনদের কাছ থেকে পাওয়া এখন পর্যন্ত সেরা উপদেশ আপনার কাছে কোনটি মনে হয়েছে ?

আমি যখন প্রথম আয় করা শুরু করলাম তখন আমার বাবা আমাকে বলেছিলেন:

তোমাকে বেশী ইনকাম করতে হবে এমন নয়, তুমি বেশী মানুষের উপকারে আসবে এটা আমার চাওয়া।

এই উপদেশটি আমার কাছে সেরা মনে হয়েছে।

1.2

একজন সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার কে কোন বইগুলো এবং সিনেমাগুলো অবশ্যই পড়া ও দেখা উচিৎ ?

যেকোনো জটিল পরিস্থিতিতে নিজের কাজ করার মানসিকতা ঠিক রাখার জন্য আপনি কি করেন ?

জটিল কোন পরিস্থিতিতে পড়লে নিজের ক্ষতি হলেও সেই জটিল পরিস্থিতি মেনে নিয়ে আবার নতুন করে কাজ শুরু করি।

আপনি নিজেকে এখন থেকে পরবর্তী ৫ বছরের মধ্যে কোথায় দেখতে চান ?

প্রতিদিন ১ টা করে হলেও ৫ বছরে কমপক্ষে ১৫০০ টিউটোরিয়াল তৈরি করতে চাই। একটা কৃষি খামার করতে চাই। একটা কিউট বাবুর বাবা হতে চাই।

যারা ভবিষ্যতের সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার হতে যাচ্ছে তাদেরকে আরও উৎসাহিত করতে আপনার কোন উপদেশ আছে কি?

কোন ল্যাঙ্গুয়েজের মার্কেট ভ্যালু কত, কোনটা করলে তাড়াতাড়ি কাজ শেখা যাবে, তাড়াতাড়ি কি শুরু করলে আয় করা যাবে এসব না ভেবে ভালোবাসতে শিখুন। যেটাকে ভালোবাসেন সেটা করুন। ওয়ার্ল্ডে সবকিছুর প্রয়োজন আছে। তাই ভালোবেসে এগিয়ে যান।

শূন্যস্থান পুরন করুন, আমি এই একই প্রশ্নের উত্তর গুলো ______ কাছ থেকে শুনতে পছন্দ করব।

Asif Saho

10455000_10203613758364686_1131928755692376126_o

Shares